ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন : শুরু থেকে...

বলা যায় সেই ১৯৭৯-৮০ সালের দিকে আমরা যখন গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থী, তখনই মাঝে মধ্যে গুঞ্জন শোনা যেত যে, আমাদের বিভাগের একটা অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন থাকা দরকার। সে সময় বিভাগে ‘গণযোগাযোগ ক্লাব’ নামে একটি সংগঠনের অস্তিত্ব ছিল। মাঝে মধ্যে দু’-একটি অনুষ্ঠান এই ক্লাব-এর উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হতো। একটু তোড়জোড় করে একসময় সংবাদ সংস্থা ইউএনবি প্রতিষ্ঠার পর পরই এর কর্ণধার (বিভাগের শিক্ষার্থী এবং স্বল্প সময়ের শিক্ষক) জনাব এনায়েত উল্লাহ খান হোটেল পূর্বাণী এবং হোটেল শেরাটনে দু’একবার অনুষ্ঠান এবং নৈশভোজের আয়োজন করেন। বিভাগের শিক্ষক, সিনিয়র শিক্ষার্থী এবং বেশ কিছু পুরাতন ছাত্র-ছাত্রী এই অনুষ্ঠানে যোগ দেন। অধ্যাপক কিউ এ আই এম নুরউদ্দিন অনুষ্ঠানগুলোতে সভাপতিত্ব করেন। এসব অনুষ্ঠানে জনাব এনায়েত উল্লাহ খানকে প্রধান উদ্যোগী করে বিভাগের অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন গঠনের কথা ঘোষণা করা হয়। কিন্ত এ উদ্যোগ ওই পর্যন্তই।

বহুবছর পর আর এটা নিয়ে তোড়জোড় শোনা যায়নি। ২০০০ সালে অধ্যাপক কিউ এ আই এম নুরউদ্দিন বিভাগ থেকে অবসরে যান। বিভাগের বর্তমান-পুরাতন শিক্ষার্থীরা মিলে ৮ সেপ্টেম্বর ২০০০ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে তাঁকে এক বিশাল সংবর্ধনা প্রদান করে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে একক কোনো শিক্ষকের বিদায়ে এত বড় অনুষ্ঠান এর আগে আমাদের চোখে আর পড়েনি। এই অনুষ্ঠান থেকে আবারও তাগিদ ওঠে বিভাগের অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন গঠনের। অধ্যাপক ড. গোলাম রহমানের নেতৃত্বে ২০০৪-২০০৫ সালের দিকে এ নিয়ে বেশ কয়েকবার সভা হয়। এ সময় মোটামুটি একটা কার্যকর উদ্যোগের চেষ্টা নেওয়া হলেও শেষ পর্যন্ত তাও বাস্তবায়িত হয়নি।

২০০৬ সালে ড. শেখ আবদুস সালাম বিভাগের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব নেওয়ার পর বিভাগের কয়েকজন শিক্ষক এবং প্রাক্তন দু’চারজন শিক্ষার্থীর পক্ষ থেকে  কোনো কোনো সময় অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন গঠনের কথা বলা হয়। তখন থেকে ভাবনা শুরু হয় - কীভাবে এটা করা যায়। ২০০৮ সালে মার্চের প্রথম সপ্তাহে বিভাগের কিছু শিক্ষার্থী বিভাগীয় চেয়ারম্যান হিসেবে ড. শেখ আবদুস সালামের কাছে একটি পিকনিক আয়োজন করার প্রস্তাব নিয়ে আসে। এই উদ্যোগের সঙ্গে বিভাগীয় শিক্ষক জনাব মফিজুর রহমান, জনাব রোবায়েত ফেরদৌস, মাস্টার্স পরীক্ষার্থী আহমেদ পিপুল, প্রাক্তন ছাত্র কাজী মোয়াজ্জেম হোসেন প্রমুখের সংযোগ ঘটে। তখন সম্মিলিতভাবে সিদ্ধান্ত হয় পিকনিকটা বর্তমান এবং পুরাতন শিক্ষার্থীদের নিয়ে বড় আকারে আয়োজন করে সেখানে অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন গঠনের বিষয়টি আনলে কেমন হয়? তখন সবাই একমত হয়ে আরও দু’জন উদ্যোগী প্রাক্তন ছাত্র জনাব মো. শামসুল হক এবং মি. স্বপন কুমার দাসকে এই উদ্যোগের সঙ্গে সম্পৃক্ত করেন। এভাবে ২১ মার্চ ২০০৮ তারিখ মৌলভীবাজার জেলার লাউয়াছড়ায় বিভাগের এযাবৎকালের সর্ববৃহৎ পিকনিকের আয়োজন করা হয়। সেখানে নতুন-পুরাতন মিলে প্রায় ৬০০ শিক্ষক-শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন এবং লাউয়াছড়ায় বসে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন গঠনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

সে লক্ষ্যে অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালামকে আহবায়ক, জনাব রোবায়েত ফেরদৌস, জনাব কাজী মোয়াজ্জেম হোসেন ও জনাব আহমেদ পিপুলকে যুগ্ম আহবায়ক এবং জনাব আক্তারুজ্জামান, জনাব মো. শামসুল হক, জনাব মফিজুর রহমান, জনাব নুরুল আজম পবন, জনাব গিয়াস উদ্দিন আহমেদ, মিজ পারভীন সুলতানা ঝুমা, মিজ শারমীন রিনভী, জনাব শাহেদ আলম, মি. স্বপন কুমার দাস প্রমুখদের নিয়ে একটি আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়। তাঁদেরকে প্রয়োজনে অপরাপর আগ্রহীদের মধ্য থেকে সদস্য কো-অপ্ট করা এবং আগস্ট মাসে বিভাগ দিবসকে সামনে রেখে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের দায়িত্ব দেওয়া হয়।  এ ব্যাপারে আহবায়ক কমিটি বেশক’টি সভা মিলিত হয় এবং জনাব শামসুল হককে উপদেষ্টা ও জনাব রোবায়েত ফেরদৌসকে আহবায়ক করে অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের জন্য একটি গঠনতন্ত্র (খসড়া) প্রণয়ন কমিটি গঠন করা হয়। তাঁরা তা যথাসময়ে প্রণয়ন করেন। বিশিষ্ট আর্টিস্ট মি. সমরজিত রায় চৌধুরীকে দিয়ে অ্যালামনাই ‘লোগো’ তৈরি করা হয়। এতসব ধারাবাহিকতা, অসংখ্য মানুষের আগ্রহ, উদ্যোগ ও ত্যাগ মিলিয়ে ২০০৮ সালের ৯ আগস্ট টিএসসিতে আয়োজন করা হয় বিভাগীয় শিক্ষার্থীদের একটি মিলনমেলা। আর এই আয়োজন থেকে অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালামকে সভাপতি এবং জনাব মো. শামসুল হককে সাধারণ সম্পাদক করে গঠন করা হয় ৪১ সদস্য বিশিষ্ট একটি পূর্ণাঙ্গ কার্যকরী কমিটি। শুরু হয় আমাদের স্বপ্ন বাস্তবায়নে আনুষ্ঠানিক যাত্রা - প্রতিষ্ঠিত হয় ডিইউএমসিজেএএ অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন (DUMCJAA)|

এরপর ২০১০ সালেও অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম ও মো. শামসুল হক যথাক্রমে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ৪১ সদস্যবিশিষ্ট কার্যকরী কমিটির নেতৃত্ব দেন। ২০১১ সালে অধ্যাপক ড. গোলাম রহমান এবং স্বপন কুমার দাসের নেতৃত্বে অ্যাসোসিয়েশনের নতুন কার্যকরী কমিটি দায়িত্ব গ্রহণ করে। এর পরবর্তী দু’বছরের জন্য অ্যাসোসিয়েশনের নতুন কমিটির সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণ করেন মো. আলমগীর হোসেন এবং সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দ্বিতীয়বারের মতো দায়িত্ব পালন করেন জনাব স্বপন কুমার দাস। আর এভাবেই দেখতে দেখতে   অষ্টম বর্ষে পদার্পণকালে ৩০ জুলাই ২০১৬  অনুষ্ঠিত হচ্ছে ডিইউএমসিজেএএ -এর সপ্তম বার্ষিক সাধারণ সভা। শিশুকাল পেড়িয়ে দুরন্ত কৈশোরের দিকে এগিয়ে চলেছে ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় পরিবারের অন্যতম জনপ্রিয় অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন ডিইউএমসিজেএএ।

Recent Messages

2015-04-15 10:36:32

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

 

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

 

ঢাবি

Continue Reading

Recent Member

    • Lagina Akter Jaslin
    • Sub Editor
    • House #4, Lane # 18, Block # C, Section #10, Mirpur, Dhaka-1216
    • M-01924478244
    • lazinajaslin@yahoo.com
    • Monoj Kanti Roy
    • Special Corrospondent
    • Bangladesh Sangbad Sangstha, 68/2, Purana Paltan, Dhaka-1000
    • M-01713180019
    • monoj@journalist.com
    • Md. Sariful Islam
    • Advocacy Comm
    • R#20/B, H#7, Section # 4, Uttara, Dhaka-1230
    • M-01915631608
    • sarif.71@gmail.com
    • Sayed Md. Muenul Hoq
    • M-01718582139
    • smmuenul@gmail.com
    • Mohammad Abu Saleh Siddique
    • Room N0 217, Sir A F Rahman Hall, Dhaka University, Dhaka
    • Salveen Sultana
    • Sr. Manager
    • J/7, Block E, Kazi Nazrul Islam Road, Mohammad Pur, Dhaka
    • M- 01715010682
    • salveen_sultana@yahoo.com
    • Mohammad Kamrul Islam
    • Deputy Director
    • Bangladesh Bank Bhaban, Motijheel, Dhaka
    • M-01712037287
    • mdkamrul.islam@bb.rg.bd
    • Taslima Khan
    • H# 12, R #9, Section #14, Uttara, Dhaka
    • M-01714398407
    • Shaila Yeasmin
    • Lecturer
    • 125, Crecent Road, Dhanmondi, Dhaka
    • M-01733200360
    • shailayesmin@yahoo.com
    • Md. Shakhawat Hossain Khan
    • Shift Incharge
    • H#39, R#19, Section #13, Uttara, Dhaka
    • M-01552541438
    • khanfuld1@yahoo.com